পুরুষরা যে কারণে এ খাবার গুলো বেশি খাবেন!!

পুরুষের স্বাস্থ্য, সুস্থ্য থাকুন

Your ads will be inserted here by

Easy Plugin for AdSense.

Please go to the plugin admin page to
Paste your ad code OR
Suppress this ad slot.

মহিলাদের তুলনায় পুরুষের শক্তি অবচয় বেশি হয়। স্বাস্থ্য ঝুকিঁ থাকে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে। অনেক ক্ষেত্রে একজন নারীর চেয়ে পুরুষরা কায়িক শ্রম বেশি করে থাকে। তাই বলে নারীদের আমি ছোট করে দেখছিনা। পুরুষদের কায়িক শ্রমের হার বেশি হওয়ার কারণে এবং তার শক্তিক্ষয়ের পরিমাণও উল্লেখযোগ্য হারে অনেক বেশি, তাই পুরুষেদের খাদ্য তালিকায় সর্বোত্তম খাবারগুলো রাখা উচিত। যাতে করে তারা পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য সুবিধা এবং সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে সক্ষম হয়।

সুস্থ্য থাকতে চান নিশ্চয়ই? আসুন একটি সমীক্ষা থেকে কিছু তথ্য জেনে নিই।

এক গবেষনায় দেখা গেছে যে, নারীর চেয়ে পুরুষের শারীরিক গঠন আলাদা হওয়ার কারণে তার পেশি ভর নারীর চেয়ে বেশি। গবেষনায় আরো দেখা যায় যে, নারীদের থেকে পুরুষের উচ্চ ক্যালোরি প্রয়োজন। এ ছাড়াও অন্যান্য দিক থেকে তাদের ভিটামিন ও খনিজ এর অভাব ও কম নয়। তাই সব দিক বিবেচনায় তাদের শরীর সুস্থ্য সবল ও কর্মমক্ষম রাখতে কিছু বিশেষ খাবারের প্রতি দৃষ্টি রাখা জরুরি। পুরুষের বিশেষ চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে গবেষকগণ তাদের খাদ্য তালিকায় নিচের খাদ্য গুলো রাখার পরামর্শ দিয়েছেন।

** বাদাম: বাদাম প্রচুর প্রোটিন সমৃদ্ধ একটি খাবার। এটি পুরুষের খাদ্য তালিকার অন্যতম একটি খাবার। প্রতিদিন অন্তত ১৫/20 টি বাদাম খান।

পুরুষেরা যে খাবারগুলো খাবেন
পুরুষেরা যে খাবারগুলো খাবেন

** রসুন: পুরুষদের জন্য রসুন একটি উপকারী খাদ্য। এটি শুকানু বৃদ্ধিতে সহায়তা করে থাকে। এছাড়াও ষ্ট্রোকের ঝুকি কমায়। এটি একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি-ব্যাকটিরিয়াল জাতীয় খাদ্য

** সুর্যমুখী বীজ: সুর্যযমুখী বীজে রয়েছে ‘ভিটামিন ই’। সূর্যযমুখী বীজের এ ভিটামিন ই শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের যোগান দেয়। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরে রোগ সৃস্টিকারী জীবানুর বিরুদ্ধে লড়াই করে থাকে।

** সয়াবিন: সয়াবিন ক্যালশিয়াম সমৃদ্ধ একটি খাবার। এটি হাড়ের ক্ষয় রোধ ও বৃদ্ধিতে করতে সাহায্য করে থাকে।

** টমেটো : টমেটো একটি অসাধারণ সবজি। টমেটোতে রয়েছে প্রচুর পুষ্টি উপাদান। এছাড়াও প্রয়োজনীয় ফাইবার ও ভিটামিন সি এ ভরপুর। তাই বেশি পরিমাণে দুষণমুক্ত টমেটো খান আপনার হার্ট কে সুস্থ্য রাখুন।

** পেস্তা বাদাম: আমরা সবাই কম বেশি পেস্তা বাদামের কথা জানি। এতে রয়েছে প্রয়োজনীয় প্রোটিনের যোগান। শুধু কি তাই, এটি শরীরের জন্য ক্ষতিকর কোলেস্টরল কমাতে খুবই সহায়তা করে থাকে। পাশাপাশি হার্ট রাখতে ও  সাহায্য করে।

** কাজু বাদাম: কাজু বাদামে আছে ম্যাগনেশিয়াম। এটি শরীরের পেশী দৃঢ়তা ধরে রাখতে সাহায্য করে থাকে।

** মসুর ডাল: প্রোটিন এবং কার্বোহাইড্রেট এ ভরপুর মুসর ডাল। প্রতিদিনের শক্তি যোগানে মুসর ডালের জুড়ি নেই । এক বাটি ঘন মুসর ডাল সারাদিনের প্রয়োজনীয় শক্তির যোগান দিয়ে থাকে।

** বাধাকপি: বাধাঁকপি একটি শীতকালীন সবজি। এর পুষ্টিগুন প্রচুর। তাতে ভিটামিন কে এর যোগান পাবেন। খাবারে বাধাকপিকে সালাদ হিসেবে যোগ করতে পারেন।

**  কমলা: কমলায় রয়েছে ভিটামিন বি-9, এর গুন শুনলে অবাক হবেন। প্রতিদিনের এক গ্লাস কমলার জুসে রক্ত প্রবাহের হার ঠিক থাকে।

পুরুষের আর্কষনীয় স্বাস্থ্য
পুরুষের আর্কষনীয় স্বাস্থ্য

** তরমুজ: তরমুজকে প্রাকৃতিক ভায়োগা বলা হয়। এছাড়া ও এতে রয়েছে পটাশিয়াম, লাইকোপ্রোন। তরমুজ একটি খুবই উপকারী ফল। যা শক্তি বৃদ্ধিতে কাজ করে এবং ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে। প্রতিটি পুরুষের জন্য তরমুজ একটি আদর্শশ খাবার।

** মিষ্টি আলু: মিষ্টি আলু চিনেনা। বাংলায় এমন লোকের দেখা মিলা দায়। মিস্টি আলু অবহেলার বস্তু নয়। তাই মিস্টি আলু আপনার ভোজন তালিকায় রাখতে ভুলবেনা।

** সরিষা: একটা সময় ছিল যখন বাংলার কৃষকরা অনেক বেশি সরিষার চাষ করতো। কিনতু কালের পরিক্রমায় আজ অনেকটা কমে গেছে। সরিষা অতিরিক্ত ওজন কমাতে সাহায্য করে থাকে। এটি হার্টের জন্য ভালো কাজ করে থাকে।

** কটেজ পনির : এটি পেশীর শক্তি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে থাকে।

** অলিভ ওয়েল: এটি ও হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুকিঁ কমাতে সাহায্য করে থাকে।

** নারকেল : নারকেল আমাদের অতি পরিচিত একটি ফল। এদেশে সারা বছর ব্যাপি এ ফল পাওয়া যায়। নারকেল শরীরের উপকারী কোলেস্টরল বাড়াতে সাহায্য করে থাকে।

** কুমড়া:  কুমড়ায় রয়েছে দস্তা। এই কুমড়া শরীরের শক্তি বাড়াতে ও হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধিতে সহায়তা করে থাকে। কুমড়া  একটি স্বাস্থ্য উপকারী খাবার।

** ব্রোকলি /ফুলকপি জাতীয় শস্য : এটি শরীরের ইমিউনিটি সিস্টেমকে ভালো রাখতে সহায়তা করে থাকে।

নিয়মিত এ খাবার গুলো গ্রহণ করতে থাকলে আপনি সুস্বাস্থ্য ফিরে পাবেন। সুস্থ্য থাকাতে ও সুস্বাস্থ্য রক্ষায় এ খাবার গুলো অনন্য।

নিজে সুস্থ্য থাকুন এবং অন্যকে সুস্থ্য থাকতে সহযোগিতা করুন।

 

Leave a Reply